চীনের শেনজেন শহরে লকডাউন, ২ কোটি মানুষ গৃহবন্দী!

 অনুলিপির পোস্ট সবার আগে পড়তে গুগল নিউজে ফলো করুন 👈

চীনের শেনজেন শহরে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় আবারও দেওয়া হয়েছে লকডাউন। এতে প্রায় ২ কোটি মানু্ষ গৃহবন্দি হয়ে পড়েছেন।

এর আগেও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় চীনের চেংড়ু শহরের ২ কোটি ১০ লাখ মানুষকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছিল। করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে শুরু থেকেই ”কোভিড জিরো” নীতি অনুসরণ করছে চীন। এর আওতায় একের পর এক শহর লকডাউনের আওতায় আনা হচ্ছে।

চেংড়ু শহর নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনাকাটায় একটি পরিবার থেকে যে কোনো একজন বাইরে যাওয়ার অনুমতি পাবেন। এমন নিয়মই বেঁধে দেওয়া হয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ থেকে। লকডাউন চলাকালে অন্য প্রদেশের বাসিন্দাদের চেংডু শহরে প্রবেশেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। বাতিল হয়েছে সব ধরণের ফ্লাইট। এমনকি ব্যক্তিগত ফ্লাইটেও কাউকে ভ্রমণ করতে দেওয়া হচ্ছে না। শুক্রবার সেখানে ১৫৫ জনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। একদিন আগে এই সংখ্যা ছিল ১৫০।

আরও পড়ুন# সতর্ক থাকুন গুগল ব্যবহারকারীরা!

এদিকে চীনের শেনজেন শহরে লকডাউনের পাশাপাশি বাস সার্ভিস ও সাবওয়ে পরিষেবা স্থগিত করা হয়েছে। ওই প্রদেশের ছয়টি জেলার বেশিরভাগ মানুষকে এক সপ্তাহে বাধ্যতামূলকভাবে দুইবার করোনা শনাক্তকরণ পরীক্ষা করাতে বলা হয়েছে!

খাবার, ঔষধ ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার জন্য প্রতিটি পরিবারের একজন দুইদিন পরপর বাড়ি থেকে বের হওয়ার অনুমতি পেয়েছেন। শহরটিতে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শুক্রবার শেনজেন শহরে স্থানীয়ভাবে ৮৭ জনের দেহে নতুন করে সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান নামক শহরে প্রথম করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। সেখান থেকেই এই প্রাণঘাতী ভাইরাস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও করোনার প্রকৃত উৎস কোথায় তা নিয়ে এখনো সংশয় রয়ে গেছে।

সূত্র : রয়টার্স

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Dear Viewer, Please Turn Off Your Ad Blocker To Continue Visiting Our Site & Enjoy Our Contents.