ধর্মফিচার

পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করার দোয়া!

পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করার দোয়াঃ 'আল্লাহুম্মা হাসিবনি হিসাবাইঁ ইয়াসিরা। অর্থঃ হে আল্লাহ! আপনি আমার হিসাব (পরীক্ষা) সহজ করে দেন।

পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করার দোয়া ঃ আল্লাহর অনুগত বান্দা হিসাবে সকল কাজের পূর্বে তার প্রতি বিশ্বাস করে আমল করা জরুরি। কারণ, আল্লাহর আদেশ ব্যতীত একটি গাছের পাতাও নড়ে না। তেমনি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করতেও আল্লাহর দরবারে বিশেষ দোয়া করতে হবে। এতে মহান আল্লাহ বান্দার প্রতি উদার হয়ে তার জন্য সঠিক ফলাফল দিয়ে পুরস্কৃত করবে।

তবে প্রত্যেক কাজে দোয়ার গুরুত্ব ও ফজিলত থাকলেও লেখাপড়া কিংবা পরীক্ষা ভালো ফলাফল করার জন্য নির্দিষ্ট কোনো দোয়ার বর্ণনা হাদিসে পাওয়া যায় না। তবে এ কথা স্বীকৃত যে, যে কোনো কাজ শুরুর আগে বিসমিল্লাহ পাঠ করবে’ (আল-মাওসুআতুল ফিকহিয়া: ৮/৯২)।

কারণ আমাদের প্রিয় নবী (স.) প্রতিটি কাজ শুরু করার আগে ‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম’ বলতেন এবং সবাইকে প্রত্যেক ভালো কাজের শুরুতে এটি পাঠ করার নির্দেশ দিতেন। এটি এমন ফজিলতপূর্ণ আয়াত, যা পাঠ করার মাধ্যমে ওই কাজে বরকত ও পূর্ণতা আসে। হাদিসে এসেছে, ‘প্রত্যেক এমন গুরুত্বপূর্ণ কাজ, যার শুরুতে বিসমিল্লাহ পড়া হয়নি তা অসম্পূর্ণ থেকে যায়।’ (মুসনাদে আহমদ: ১৪/৩২৯ ; রওজাতুল মুহাদ্দিসিন: ৬৪৫)

তাই বলা যায়, পরীক্ষায় ভালো করতে লেখার পূর্বে বা পড়ার পূর্বে এই আমলটি পালন করলে ভালো ফলাফল প্রত্যাশা করা যায়। আর পরীক্ষা যেহেতু শিক্ষা অর্জন এবং মনের মধ্যে অস্থিরতা সৃষ্টিকারী বিষয় সেজন্য নিচের দোয়াগুলো আমল করলে, তা পরীক্ষার ক্ষেত্রে ভালো প্রভাব ফেলবে। দোয়াগুলো হলো:

১) رَبِّ زِدْنِي عِلْمًا
উচ্চারণ: ‘রাব্বি যিদনী ইলমা’
অর্থ: ‘হে আমার প্রতিপালক! আমার জ্ঞান বৃদ্ধি করো।’ (সুরা তোয়াহা: ১১৪)

২) رَبِّ ٱشْرَحْ لِى صَدْرِى وَيَسِّرْ لِىٓ أَمْرِى وَٱحْلُلْ عُقْدَةً مِّن لِّسَانِى يَفْقَهُوا۟ قَوْلِى
উচ্চারণ: ‘রব্বিশ রাহলী সদরী ওয়া ইসসিরলী আমরী, ওয়াহলুল ওক্বদাতাম মিল লিসানী ইয়াফক্বাহূ ক্বওলী’
অর্থ: ‘হে আমার পালনকর্তা! তুমি আমার বক্ষ প্রশস্ত করে দাও, আমার কাজ সহজ করে দাও এবং আমার জিহ্বার জড়তা দূর করে দাও, যাতে লোকেরা আমার কথা বুঝতে পারে।’ (সুরা তোয়াহা: ২৫-২৮)

আরো পড়ুনঃ যে আমল করলে আপনার সম্মান বৃদ্ধি পাবে!

৩) اللَّهُمَّ أَيِّدْني بِرُوحِ الْقُدُسِ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা আইয়িদনী বেরূহিল কুদুস।
অর্থ: ‘হে আল্লাহ! তুমি আমাকে পবিত্র আত্মা দ্বারা শক্তি বৃদ্ধি করো।’ (বুখারি: ৪৫৩; মুসলিম: ২৪৮৫; মেশকাত: ৪৭৮৯)

৪) ِاللَّهُمَّ انْفَعْنِي بِمَا عَلَّمْتَنِي، وَعَلِّمْنِي مَا يَنْفَعُنِي، وَزِدْنِي عِلْمًا وأعُوْذُ بِاللَّهِ مِنْ حَالِ أهْلِ النَّار
উচ্চারণ: ‘আল্লাহুম্মানফা-নি বিমা আল্লামতানি, ওয়া আল্লিমনি মা ইয়ানফাউনি ওয়া জিদনি ইলমা, ওয়া আউজুবিল্লাহি মিন হালি আহলিন নারি।
অর্থ: হে আল্লাহ! আমাকে তুমি যা শিখিয়েছ, তা দিয়ে আমাকে উপকৃত করো, আমার জন্য যা উপকারী হবে, তা আমাকে শিখিয়ে দাও এবং আমার ইলম (জ্ঞান) বাড়িয়ে দাও এবং আমি জাহান্নামিদের অবস্থা থেকে হেফাজতের জন্য আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করি। (তিরমিজি: ৩৫৯৯; ইবনে মাজাহ: ২৫১; ইবনু আবি শায়বা: ১০/২৮১)

৫) رَبِّي يَسِّرْ وَلاَ تُعَسِّرْ وَتَمِّمْ بِالْخَیْر
উচ্চারণ: `রব্বি ইয়াসসির ওয়ালা তুআসসির ওয়াতাম্মিম বিল খাইর’
অর্থ: ‘হে আমার প্রতিপালক! তুমি সহজ করে দাও, কঠিন করো না এবং কল্যাণের সাথে সমাপ্ত করে দাও।’ (বায়হাকি কুবরা: ৭০০৩, ১১২৯৯)

আরো পড়ুনঃ ৩০ বছর পর বিহারে ভেসে উঠল শতবর্ষী মসজিদ!

৬) اللَّهُمَّ فَقِّهْنِي فِي الدِّينِ
উচ্চারণ: ‘আল্লাহুম্মা ফাক্কিহনি ফিদ দীন’
অর্থ: হে আল্লাহ! আমাকে দীনের জ্ঞান দান করুন।’ (বুখারি: ১৪৩)

৭) اللَّهُمَّ لَا سَهْلَ إلاَّ مَا جَعَلْتَهُ سَهْلاً، وأنْتَ تَجْعَلُ الحَزْنَ إذَا شِئْتَ
উচ্চারণ: ‘আল্লাহুম্মা লা-সাহলা ইল্লা মা জায়ালতাহু সাহলান, ওয়া আনতা তাজআলুল হুজনা সাহলান ইজা শিইতা।’
অর্থ: ‘হে আল্লাহ, আপনি যা সহজ করে দেন তা ছাড়া কোনো কিছুই সহজ নেই। আর আপনি চাইলে পেরেশানিযুক্ত কাজও সহজ করে দেন।’ (সহিহ ইবনে হিব্বান: ৯৭৪)

আপনি যদি পরীক্ষার্থী বা শিক্ষার্থী হয়ে থাকেন তবে নিয়মিত উপরে উল্লেখিত দোয়াগুলো আমল করতে পারেন। এতে আপনার পরীক্ষার ফলাফল ভালো হবে। আর আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সকল শিক্ষার্থী ও পরীক্ষার্থীদের পড়ালেখায় বারাকাহ দান করুন। কোরআন-সুন্নাহ জানার-বুঝার তাওফিক দান করুন। উপরোক্ত আমলগুলো নিয়মিত পালন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

তাছাড়াও, আপনার পরিচিতদের এই আমল গ্রহণ করাতে চান। তাহলে, তাদের সাথে এই আর্টিকেলটি শেয়ার করুন। আর যদি আপনি এই ধরনের আরও দোয়া ও ইসলাম সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হোন,  তবে অনুলিপির সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button