স্বাস্থ্য ও লাইফস্টাইল

হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায় যে ৫টি খাবার

মানব শরীরের হৃদপিন্ড বা হার্ট প্রতিদিন এক লাখ কম্পিত হয়। হার্ট একমাত্র অঙ্গ সারাক্ষণ এই পরিশ্রম করে কোন সময় বিশ্রাম নেয় না। তিনটি রক্তনালি তাদের শাখা-প্রশাখার মাধ্যমে রক্ত সরবরাহ করে থাকে হার্টের মাংসপেশিতে। তাই হার্টকে বলা হয়ে থাকে আমাদের শরীরের ইঞ্জিন।

কিন্তু কোন সময় কি ভাবছেন ইঞ্জিন নষ্ট হলে কি অবস্থা হবে? আর ইঞ্জিন ঠিক রাখতে কি ধরনের খাবার খাব। অর্থাৎ হার্ট অ্যাটাক হলে আমাদের ইঞ্জিন ওকেযো হয়ে যায়। তাই হার্ট অ্যাটাক থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আমাদের এমন পাঁচটি খাবার দৈনিক খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে যেন হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়। আসোন জেনে নেই হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায় যে ৫টি খাবার

খেজুর ও দুধ: প্রতিদিন তিনটি খেজুরের সাথে এক গ্লাস দুধ খাওয়ার অভ্যাস হার্টকে অনেক বেশি সুরক্ষিত রাখতে পারে। দুধ ও খেজুরের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও পলিফেনল রক্তে কোলেস্টেরল ও ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। আমরা যখন বেশি পরিশ্রম করি তখন আমাদের হার্টে সামান্য ব্যথা হয়। যখনই ব্যথার অনুভূত হয় তখন এক গ্লাস দুধের সাথে তিনটি খেজুর ভিজিয়ে খেলে সাথে সাথেই ব্যথা দূর হয়ে যায়।

মধু: মধুতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন, মিনারেল এবং এনজাইম থাকে যা আমাদের শরীরের বিভিন্ন অসুস্থতা থেকে রক্ষা করে। মধু আমাদের হার্টের জন্য খুবই উপকারী। মধু আমাদের হার্টে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে বিশেষ ভূমিকা রাখে। প্রতিদিন সকালে ১-২ চা চামচ মধু সরাসরি খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করতে পারেন । এটি শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী ।

আমলকির চা: ১০০ গ্রাম আমলকি নিয়ে ব্লেন্ডার করে এক কাপ পরিমাণ রস বের করতে হবে। এই আমলকির রস এখন গরম পানিতে মিশাতে হবে। এখন সামান্য পরিমাণ লবণ দিয়ে খেয়ে ফেলতে হবে। আমলকির চা হার্টের জন্য অত্যন্ত উপকারী। হার্ট অ্যাটাক, হাই ব্লাড প্রেসারসহ একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। এর জন্য অনেকাংশেই দায়ি থাকে বায়ুদূষণ। বলা বাহুল্য, শীতে আবার বাতাসে দূষণের মাত্রা বেড়ে যায়। তাই এই সময়ে আমলকের চা খাওয়া উচিত, যাতে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ও প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান রয়েছে।

আরো পড়ুন: হাঁটলেই কমবে হার্ট অ্যাটাক-ক্যান্সারের ঝুঁকি!

ব্রকোলি: আসলে ব্রকোলি হৃৎপিণ্ডের জন্য খুবই ভালো এক সবজি। এই সবজির মধ্যে রয়েছে লিউটিন। এবার এই উপাদান কিন্তু হার্ট ভালো রাখতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ব্রকোলি নিয়মিত খাওয়া মানুষের হার্টের রোগের আশঙ্কা বহুগুণ কমে যায়। এছাড়া দেখা গিয়েছে যে এরমধ্যে থাকা পটাশিয়াম কোলেস্টেরল বাড়তে দেয় না। তাই সতর্ক হয়ে যান।

টমেটো: টমেটো দারুণ উপকারী এক খাবার। এই সবজিটির মধ্যে এমন কিছু অ্যালকালয়েড রয়েছে যা কোলেস্টেরল কমাতে পারে। এমন কী হার্ট অ্যাটাক ও কমাতে পারে এই সবজি। তাই এই খাবারটি আপনাকে পাতে রাখতেই হবে। তবেই ভালো থাকতে পারবেন। সাইট্রিক এবং ম্যালিক অ্যাসিড হল টমেটোর মধ্যে উপস্থিত প্রধান জৈব অ্যাসিড। যা হার্ট এর জন্য উপকার।

বাংলাদেশেসহ বিশ্বের সকল খবর সবার আগে জানতে অনুলিপির সাথেই থাকুন।

Back to top button

Opps, You are using ads blocker!

প্রিয় পাঠক, আপনি অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করছেন, যার ফলে আমরা রেভেনিউ হারাচ্ছি, দয়া করে অ্যাড ব্লকারটি বন্ধ করুন।