ফিচার

নামাজের পর রাসুল (সা.) যে দোয়াগুলো পড়তেন

মুমিনদের সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত নামাজ। আল্লাহর সঙ্গে সরাসরি সম্পর্ক করা যায় নামাজের মাধ্যমে। আল্লাহর রাসুল (সা.) বিভিন্ন জিকির-আজকার ও দোয়া পড়তেন নামাজ শেষে। বিশেষ করে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম ফরজ নামাজ শেষ হওয়ার পর প্রথমে ‘আসতাগফিরুল্লাহ’ পারতেন। নামাজ আদায় যেসব ভুল হয়েছে তা থেকে আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করার উদ্দেশ্যেই বিভিন্ন দোয়া করা যায়। এছাড়া রাসুল (সা.) দোয়া পড়তেন। তার পঠিত দোয়া গুলোর মধ্য অন্যতম একটি দোয়া,

اللَّهُمَّ أَنْتَ السَّلاَمُ، وَمِنْكَ السَّلاَمُ، تَبَارَكْتَ يَا ذَا الْجَلاَلِ وَالْإِكْرَامِ

উচ্চারণ: ‘আল্লাহুম্মা আনতাসালাম, ওয়া মিনকাস সালাম, তাবারকতা ইয়া যাল জালালি ওয়াল ইকরাম।’
অর্থ: ‘হে আল্লাহ, আপনি সব অপূর্ণতা থেকে মুক্ত। আপনার কাছে আমরা সব অকল্যাণ থেকে মুক্তি চাই। দুনিয়া ও আখিরাতে আপনি কল্যাণ বৃদ্ধি করুন, হে সম্মান ও বড়ত্বের অধিকারী।

আরো পড়ুন: তারাবির নামাজ নিয়ম, নিয়ত ও দোয়া

বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (স.) একদিন তাঁর প্রিয় সাহাবী হজরত মুআজ বিন জাবাল (রা.) এর হাত ধরে বললেন, মুআজ! আল্লাহর কসম, আমি তোমাকে ভালোবাসি।’ মুআজ (রা.) তৎক্ষণাৎ উত্তর দিলেন, ‘আমার মা-বাবা আপনার জন্য উৎসর্গিত হোক! আল্লাহর কসম, আমিও আপনাকে ভালোবাসি।’ অতঃপর রাসুলুল্লাহ (স.) বললেন, মুআজ! আমি তোমাকে বলছি, কখনোই নামাজের পরে এ দোয়া পড়তে ভুল করো না।

اللّهُمَّ أَعِنِّيْ عَلٰى ذِكْرِكَ وَشُكْرِكَ وَحُسْنِ عِبَادَتِ

উচ্চারণ: ‘আল্লাহুম্মা আইন্নি আলা জিকরিকা ওয়া শুকরিকা ওয়া হুসনি ইবাদাতিকা’
অর্থ: হে আল্লাহ, আপনার স্মরণে, আপনার কৃতজ্ঞতা প্রকাশে এবং আপনার উত্তম ইবাদতে আমাকে সাহায্য করুন।

বাংলাদেশেসহ বিশ্বের সকল খবর সবার আগে জানতে অনুলিপির সাথেই থাকুন।

Back to top button

Opps, You are using ads blocker!

প্রিয় পাঠক, আপনি অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করছেন, যার ফলে আমরা রেভেনিউ হারাচ্ছি, দয়া করে অ্যাড ব্লকারটি বন্ধ করুন।