লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু!

শিক্ষণীয় গল্প: লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু!

# লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু: একটা ছোটো শহরে বাস করত এক সৎ চরিত্রের মেকানিক। প্রতিটা কাজই তিনি করতেন নিষ্ঠা আর সততার সাথে। এর জন্য তার আয় ছিল নিতান্ত কম। সেই অল্প টাকা দিয়ে টেনেটুনে চলত তার সংসার। একদিন কাজ সেরে বাড়ি যাওয়ার পর তার স্ত্রী তাকে বলল, ‘তুমি যে অল্প কয়টা টাকা দাও তা দিয়ে আমি সংসারই চালাতে পারি না।’ সে আরও বলল, ‘পাশের বাসার রাসেলও তো একই কাজ করে! সে এতো টাকা কেমনে ইনকাম করে।’ তখন মেকানিক বলল, ‘ও তো চুরি করে। আমার পক্ষে চুরি করা সম্ভব না।’ তার স্ত্রী খেপে গিয়ে বলল, ‘আমি এত কিছু বুঝি না। তোমার ইনকাম বাড়াও, তা নাহলে আমি বাপের বাড়ি চলে যাব।’

আরও পড়ুন: ডিপ্রেশন কী এবং ডিপ্রেশন থেকে বের হবার উপায়?

বেচারা মেকানিক চিন্তার মধ্যে পরে গেল স্ত্রীর রাগ কীভাবে কমানো যায়। পরদিন মেকানিক দোকানে বসে চিন্তা করতে লাগলো কীভাবে ইনকাম বাড়ানো যায়। তখন বাইক চালিয়ে একজন এসে বলল, ‘দেখেন তো বাইকে কী হয়েছে।’

তখন মেকানিক বাইকের চাকা চেক করে দেখে চাকায় হওয়া নেই। কিন্তু তার যে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে হবে। তাই সে আবার চাকায় ইচ্ছে করে পরেক ঠুকিয়ে দেয়। তারপর মেকানিক লোকটিকে বলে চাকা পাঞ্চার হয়ে গেছে। লোকটি বলল, ‘রাস্তা ঘাটে কত কিছুই না থাকে।’ তখন সে চাকাটা ঠিক করে দিতে বলে।

চাকাটা ঠিক করে দিয়ে মেকানিক বলে, ‘ভাই ৩০০ টাকা হইছে।’ তখন লোকটা ৩০০ টাকা দিয়ে বাইক নিয়ে চলে যায়। মেকানিক মনে মনে ভাবল, ভালোই তো ১০ মিনিটে ৩০০ টাকা ইনকাম হইয়া গেল। এরপর একটা প্রাইভেট কার আসে। মেকানিক ঠিক একই কাজ করল এবং ৫০০ টাকা নিলো। সে ভাবতে লাগল কীভাবে আমার দোকানের সামনে দিয়ে যতগুলো গাড়ি যাবে সবগুলোর যদি চাকা ফুটো হতো। তখন সে তার দোকানের সামনের রাস্তায় অনেকগুলা পেরেক ছিটিয়ে রাখল। 

আরও পড়ুন: বই এবং বই পড়া!

তখন সে দেখতে পেল একটি রিকশা আসছে। তার দোকানের সামনে এসেই দাঁড়িয়ে পড়ল, কারণ চাকা পাঞ্চার হয়ে গেছে। এভাবে তার কাজেরও অভাব হয় না, ইনকামও হয় প্রচুর। বাড়িতে ফিরে তার স্ত্রীকে বলে তার অনেক টাকা ইনকাম হয়েছে। তার স্ত্রী একসাথে এতগুলো টাকা দেখে খুশি হয়।এবং খুশি হয়ে দৌড়ে তার স্বামীকে জড়িয়ে ধরতে গিয়ে বেখেয়ালে মেঝেতে পড়ে থাকা পানিতে স্লিপ খেয়ে দেয়ালের সাথে মাথা ধাক্কা লেগে মাথা ফেটে যায় এবং রক্ত বের হতে থাকে।

মেকানিক কী করবে বুঝে উঠতে পারছিল না। তখন তার স্ত্রী তাকে বলে তাড়াতাড়ি আমাকে হাসপাতালে নিয়ে চলো। মেকানিক একটি সিএনজি ডেকে তার স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মেকানিকের দোকানের সামনে দিয়ে যেতে হয়। ঠিক তখন সিএনজির চাকা পাঞ্চার হয়ে যায়। তার স্ত্রী তাকে বলতে লাগল, ‘তাড়াতাড়ি আমাকে হাসপাতালে নিয়ে চলো।’ মেকানিক আশেপাশে কোনো কিছু দেখতে পেল না এবং হতাশ হয়ে পড়ল। পরে মেকানিক ঠেলা গাড়ি করে সে তার স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে গেল।

ডাক্তার বলল, তার স্ত্রীর অনেক রক্ত লাগবে। তখন মেকানিক বলল, ‘আমার রক্ত নিন।’ কিন্তু তার রক্তের গ্রুপ মিলল না। তাই অন্য হাসপাতাল থেকে রক্ত আনতে পাঠাল। কিন্তু রক্ত আনতে যে হাসপাতালে যেতে হয় সেই হাসপাতালে যেতে হলে তার দোকানের সামনে দিয়ে যেতে হয় তখন আবার রিকশার চাকা পাঞ্চার হয়ে যায়।

আরও পড়ুন: অল্প বিদ্যা ভয়ংকরী!

রক্ত নিয়ে আসার সময়ও রিকশার চাকা পাঞ্চার হয়ে যায়। রক্ত আনতে অনেক সময় লাগে তাই সে দেরিতে পৌঁছায়। এবং হাসপাতালে পৌঁছে দেখে ডাক্তাররা মলিন মুখে বসে আছে। মেকানিক তখন জিজ্ঞেস করে, ‘আমার স্ত্রী?’ ডাক্তার বলল, ‘আপনি অনেক দেরি করে ফেলেছেন। আপনার স্ত্রী অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের ফলে মারা গেছে।’

মেকানিক তখন কাঁদতে থাকে এবং মনে মনে বলতে লাগল- কেন যে আমি লোভ করতে গেলাম! আল্লাহ তুমি আমাকে মাফ করো।

[শিক্ষা: লোভ কেবল একটা জিনিসই ডেকে আনে, তা হলো- করুণ পরিণতি। এজন্যেই প্রবাদে আছে- লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু! পরিস্থিতি যা-ই থাকুক না কেন, আমাদের সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করা উচিত।]

 

ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

Related Articles

মন্তব্য করুন:

Back to top button