বগুড়ায় ১২ টাকা কেজিতে কাঁচা মরিচ!

 অনুলিপির পোস্ট সবার আগে পড়তে গুগল নিউজে ফলো করুন 👈

১২ টাকা কেজিতে কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে বগুড়ায়। মাত্র দুই সপ্তাহ আগেও পাইকারি বাজারে কাঁচা মরিচের কেজি ছিল ১৫০-২০০ টাকা । দুই সপ্তাহের ব্যবধানে সেই কাঁচা মরিচ বগুড়ার আদমদীঘিতে নেমে এসেছে সাকুল্যে ১২ টাকায়। তবে বগুড়া শহরে কাঁচা মরিচ ২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে বলে জানা যায়।

জেলার আদমদীঘির সদর, ছাতিয়ানগ্রাম ও সান্তাহার বাজারসহ বিভিন্ন হাটবাজারে বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকালে খুচরা ১৫ টাকা কেজিতে কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে। পাইকারি বাজার জেলার মহাস্থান হাটেও খুচরা ১৫ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে জেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায়  সহস্রাধিক বিঘা জমিতে মরিচ চাষ করা হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবার মরিচ চাষের পরিমাণ কিছুটা বেশি। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে তাল মিলিয়ে পাইকারি বাজারে কাঁচা মরিচের দামও বৃদ্ধি করা হয়েছিল। দুই সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা কেজিতে। যা এখন পাইকারি বাজারে ১২টাকা ও খুচরা বাজারে ১৫ টাকায় নেমে এসেছে।

আরও পড়ুন: আরও ১৬ টাকা দাম বাড়লো ১২ কেজি এলপিজি সিলিন্ডারের!

মরিচ বিক্রি করতে অন্তাহার গ্রামের আবু সাঈদ আদমদিঘী উপজেলার ছাতিয়ানগ্রাম হাটে এসে জানান, তিনি ১২ টাকা কেজি দরে কাঁচা মরিচ বিক্রি করেছেন।

এদিকে মহাস্থান হাটে পাইকারি কাঁচা মরিচ ক্রেতা রহেদুল ইসলাম জানান, জমি থেকে অধিক পরিমাণে মরিচ তোলার কারণে বাজারে আমদানি বেড়ে যাওয়ায় দাম অনেক কমে গেছে। এখন মরিচ চাষিরা বিপাকে পড়েছেন। গত দুই সপ্তাহ আগে ১৫০-২০০ টাকা কেজির কাঁচা মরিচ এখন ১৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

কাঁচা মরিচের পাইকারী ব্যবসায়ী মনোয়ার হোসেনের কাছে জানা যায়, হাট বাজারে আমদানি বেশি হওয়ায় দাম কমেছে। কাঁচা মরিচ পচনশীল। তাই মরিচের দরপতন হয়েছে।

মরিচ চাষি মকবুল হোসেন বলেন, প্রতি বিঘা জমিতে মরিচ চাষের জন্য প্রায় ২৫-৩০ হাজার টাকা খরচ হয়ে থাকে। হঠাৎ পাইকারি বাজারে ১২ টাকা কেজিতে বিক্রি করে উৎপাদন খরচ তোলা সম্ভব হচ্ছে না। এখন ক্ষেত থেকে প্রতিকেজি মরিচ তুলতে ৫ টাকা শ্রমিকের মজুরি দিতে হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে কথা বলতে গেলে বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দুলাল হোসেন জানান, জেলার ১২টি উপজেলার বেশিরভাগ মরিচ চাষ হয় ইউনিয়ন পর্যায়ে। সার্বক্ষণিক কৃষকের পাশে ছিল কৃষি বিভাগ। ফলে এবার মরিচের ফলনও ভালো হয়েছে। জমি থেকে মরিচ তোলা শুরু করায় বাজারে কাঁচা মরিচের দাম কমেছে।

আরও পড়ুন: ডজনপ্রতি ডিমের দাম আরও ১০ টাকা বাড়ল!

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Dear Viewer, Please Turn Off Your Ad Blocker To Continue Visiting Our Site & Enjoy Our Contents.